কাশিয়ানীতে “খাদ্যাভাবে দুই শিশুকে আলু খাইয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে” গুজবে বিভ্রান্তি

 প্রকাশ: ০২ ফেব্রুয়ারী ২০২১, ১১:০৩ পূর্বাহ্ন   |   কাশিয়ানী


মিরাজুল ইসলাম,গোপালগঞ্জ প্রতিনিধীঃ

ইউনিয়ন পরিষদের কোন সাহায্য না পেয়ে দুই জমজ শিশুকে আলু খাইয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে, এমন শিরোনামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।


এতে গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলাজুড়ে সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক তোলপাড় ও ক্ষোভের সৃষ্টি হয়েছে।



 

স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করতে একটি মহল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এ ধরণের ভিডিও ক্লিপ ছেড়ে ভাইরাল করেছে বলে মনে করছেন স্থানীয়রা।


ভিডিও ক্লিপটিতে বলা হয়েছে, ইউনিয়ন পরিষদের কোন সাহায্য না পেয়ে দুধের দুই জমজ শিশুকে আলু খাইয়ে বাঁচিয়ে রেখেছেন অসহায় এক মা। ঘটনাটি ঘটেছে গোপালগঞ্জ জেলার কাশিয়ানী উপজেলার সিংগা ইউনিয়নে। এছাড়া ভিডিও ক্লিপটিতে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান প্রণব সরকার ও ইউপি সদস্য প্রভাষ রায়ের কর্মকান্ড নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করা হয়েছে।


ভিডিও ভাইরালের পর সরেজমিনে অনুসন্ধানে গিয়ে জানা গেছে, কে বা কারা দরিদ্র ওই পরিবারের লোকজনকে ভুল বুঝিয়ে মিথ্যা ভিডিও করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ছড়িয়েছে।

এ সময় ওই পরিবারের সদস্যদের সাথে কথা বলে আরো জানা গেছে, ইউনিয়ন পরিষদ থেকে তাদেরকে ১০ টাকা মূল্যের খাদ্যবান্ধব কর্মসূচীর একটি কার্ড ও একটি প্রতিবন্ধী ভাতা করে দেয়া হয়েছে। এছাড়া এলাকাবাসী ওই দরিদ্র পরিবারে জন্ম নেয়া দু’শিশুর খাদ্য সহায়তা হিসেবে প্রায় অর্ধশতাধিক কৌটা গুড়া দুধ খাওয়ানোর জন্য কিনে দিয়েছেন। পুষ্টি চাহিদা মেটাতে ভাতের পাশাপাশি শিশু দুটিকে আলু খাওয়ানো হয়। তবে “খাবারের অভাবে শুধু আলু খাইয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে” এমন কথা সত্য নয় বলে শিশু দুটির মা পপি রায় সাংবাদিকদের জানিয়েছেন।


এভাবে সাধারণ মানুষকে বিভ্রান্তি করে ফায়দা লোটার চেষ্টা করে একটি স্বার্থান্বেষী মহল। এসব গুজব প্রতিরোধে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সহযোগিতা কামনা করছেন স্থানীয়রা।


সিংগা ইউপি চেয়ারম্যান প্রণব সরকার ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, আমি আ’লীগ মনোনীত বিজয়ী চেয়ারম্যান। আওয়ামী বিরোধী কিছু লোকেরা আমার এবং আওয়ামী লীগ সরকারের সাফল্যে ঈষান্বিত হয়ে এ ধরণের অপপ্রচার করে ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা করছে।

হাতিয়াড়া ইউপি চেয়ারম্যান দেবদুলাল বিশ্বাস বলেন, ফেসবুকে যে ভিডিওটি ভাইরাল হয়েছে এটা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। যা স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগ সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার চেষ্টা মাত্র।


কাশিয়ানী উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মো. মোক্তার হোসেন বলেন, খাদ্যভাবে দুই শিশুকে আলু খাইয়ে বাঁচিয়ে রাখা হয়েছে ফেসবুকে এমন গুজব ছড়ানো হচ্ছে। আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে বাংলাদেশের কোথাও এমন ইতিহাস নেই, যে খাদ্যাভাবে মানুষ আলু খেয়ে বেঁচে আছে। সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্ন করার অভিপ্রায়ে অপপ্রচার ও বিভ্রান্তি ছড়ানো হচ্ছে। এতে সরকার ও জনগণের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হচ্ছে

কাশিয়ানী এর আরও খবর: