কাশিয়ানীতে আদালতের ১৪৪ ধারা সত্ত্বেও অবৈধ ভাবে জায়গা দখল।

 প্রকাশ: ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০৮:৪১ পূর্বাহ্ন   |   কাশিয়ানী


গোপালগঞ্জ জেলা প্রতিনিধিঃ

 গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার বেথুড়ি ইউনিয়নের রামদিয়া বাজারের মো. জাকির হোসেন (আশকার) মোল্যার দলিলের সম্পতিতে ১৪৪ ধারা অমান্য করে মো. মাসুম মোল্যা জবর দখল করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

জানা যায়, বাদী মো. জাকির হোসেন (আশকার) মোল্যা আদালতে একটি মামলা করেন। এ বিষয়ে বিবাদীপক্ষের বিরুদ্ধে ১৪৪ ধারা প্রার্থন জানান তিনি। সেই পরিপ্রেক্ষিতে গোপালগঞ্জ অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিষ্ট্রেট শান্তি শৃংখলা বজায় রাখার জন্য আদালত ১৪৪ ধারা জারি করেন। কিন্তু আদালতের ১৪৪ ধারা অমান্য করে মো. মাসুম মোল্যা বাদী মো. জাকির হোসেন (আশকার) মোল্যার জায়গা দখল করে। এমন খবরে কাশিয়ানী থানা পুলিশ নিষেধাজ্ঞা জারিকৃত স্থানে গিয়ে বিবাদী মো. মাসুম মোল্যাকে নতুন করে জায়গা দখলের চেষ্টা না করার নির্দেশ দেয়।

বেদখল কৃত দলিলের সম্পতি হাত দিয়ে দেখান মো. জাকির হোসেন (আশকার) মোল্যা

বাদী মো. জাকির হোসেন (আশকার) মোল্যা বলেন, গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী উপজেলার ১০৬নং রামদিয়া মৌজার বি,আর,এস ২৩৪নং খতিয়ানের বি,আর,এস ৭২৬ ও ৭২৭ দাগে মোট ৪৯ শতাংস সম্পতি ক্রয় সুত্রে মালিক হইয়া নিজ নামে নাম পত্তন করাইয়া ঘর বাড়ি রাইচ মিল, চাতাল নির্মান করিয়া শান্তিপূর্ণ ভাবে ভোগ দখল ও ব্যবসা করিয়া আসিতেছি। বিবাদী মো. মাসুম মোল্য আমার সম্পত্তির পূর্ব পাশের্^ ২শতাংস জায়গা আদালতের ১৪৪ ধারা সত্ত্বেও অবৈধ ভাবে বাশের বেড়া নেট ও লেট্রিন দিয়ে দখল করে।

বিবাদী মো. মাসুম মোল্যা বলেন, মো. জাকির হোসেন (আশকার) মোল্যা আমার বিরুদ্ধে যে অভিযোগ করেন তাসঠিক না। অনেক আগে থেকে জমি আমরা ভোগ দখল করিয়া আসিতেছি। আসকার মোল্যা আপত্তি দিলে বাজারের ও দুই গ্রামের মুরুবীসহ আসকার নিজে থেকে শালিসীর মাধ্যমে আমাকে বাশ গেড়ে জায়গা নির্ধারন করেদেন।

এ বিষয়ে বাদীপক্ষ নিষেধাজ্ঞা অমান্যকারীদের বিরুদ্ধে আদালতের জরুরি হস্তক্ষেপ করেন

কাশিয়ানী এর আরও খবর: