স্বাস্থবিধীর তোয়াক্কা না করেই চলছে নতুনহাটে রউফের দোকান

 প্রকাশ: ২১ ডিসেম্বর ২০২০, ০৫:০২ অপরাহ্ন   |   অর্থ ও বাণিজ্য




জিয়াউল ইসলামঃ  ব্যুরোপ্রধান খুলনাঃ

 



ইতিমধ্যে করোনা-ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউ চলছে। প্রতিনিয়ত আক্রান্ত হচ্ছে অসংখ্য মানুষ অনেকে আবার এই মরণঘাতী ভাইরাসের আক্রামনে  মৃত্যু বরণও করেছে। খুলনা জেলা প্রশাসন ইতিমধ্যে (কোভিড ১৯) মোকাবেলায় না-না পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। 

মাস্ক বিহীন অবস্থায় চলাফেরার কারণে খুলনায় জেল, জরিমানা সহ বিভিন্ন আইনুনাগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। 

আরো উল্লেখ থাকে যে, খুলনা জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় ফুলতলা উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা সাদিয়া আফরিন'র নেতৃত্বে ফুলতলায় মাস্ক না পরায় জনগনকে জরিমানা,  জেলসহ  সাধারণ জনগনকে সচেতনতা করা হচ্ছে। এর আগেও স্থানীয় প্রশাসন এই রউফকে সতর্ক করলে কোন কিছুর তোয়াক্কা না করেই চালিয়ে যাচ্ছে তার বেচাকেনা। 

এরই ভেতরে ফুলতলা উপজেলার নতুনহাটে মোহাম্মদ কফি হাউসের মালিক রউফ শেখ আইনের তোয়াক্কা না করেই জমজমাট ভাবে প্রতিনিয়ত চালিয়ে যাচ্ছে তার চা বেঁচা-কেনা। 

এখানে না-কি বিশেষ স্পেশাল চা পাওয়া যায়। তাই জনগনের আড্ডার একমাত্র নির্ভর স্থল এখন রউফের চায়ের দোকান। 

সরেজমিনে ঘুরে দেখা মেলে ফুলতলা উপজেলার ভেতরে শুধু মাত্রই রউফের চার দোকানে অসংখ্য মানুষের সঙ্ঘবদ্ধতা লক্ষ্য করা যায়  ।  যাদের বেশির ভাগ লোকের মুখেই কোন মাস্ক থাকে না। বিশেষ করে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার সন্ধ্যা নামতেই রউফের চায়ের দোকানের সামনে থাকে অসংখ্য মটর সাইকেল প্রাইভেটকার সহ মানুষের অস্বাভাবিক ভীড় ।

দেখলেই যেন মনে হয় এ-কোন মিছিলের অংশ বিশেষ। 

এখানেই শেষ নয়, গভীর রাত পর্যন্ত এই চায়ের দোকানে চলতে থাকে উঠতি বয়সের তরুণ তরুণীর আড্ডা। এর আগেও ফুলতলা উপজেলা প্রশাসন তাকে বিভিন্নভাবে সতর্ক করলেও কোন ভাবে তা মানছে না।

শক্তির বলিয়ানে স্বাস্থ্যবীধি সহ অধিক জনসমাগম ও মাস্ক বিহীন ভাবে এই রউফ ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে এ প্রশ্ন এখন সাধারণ জনগনের। 

এই দোকানে আবার বিশেষ চা পাওয়া যায় যার ভক্ত আছে অনেকেই হয়তো প্রশাসনের কঠোর পদক্ষেপের অভাবে

কিংবা স্থানীয় কিছু লোকের দাপটে এই চায়ের দোকান চলছে। প্রশাসন সব কিছু জেনেও যেন নীরব ভূমিকা পালন করছে। রউফ এর চায়ের দোকান যদি অধিক জনসংখ্যা ও মাস্ক অবস্থায় চলতে থাকে তাহলে করোনা ভাইরাসের হাত থেকে কতটুকু বাচতে পারবে বলে মনে করেন এলাকার সচেতন মহল। 

এই বিষয়ে কথা হয়, খুলনা জেলার পুলিশ সুপার এস এম শফিউল্লাহ এর সাথে তিনি বলেন, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ মোকাবেলার সরকার সব ধরনের আইনুনাগ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। আমি অচিরেই আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবো বলে সাংবাদিকদের জানান তিনি ।

অর্থ ও বাণিজ্য এর আরও খবর: