দুর্গাপূজা উপলক্ষে ১১ দিনে ভারতে গেলো ৬১৮ মেট্রিক টন ইলিশ

 প্রকাশ: ২২ সেপ্টেম্বর ২০২২, ০৫:৪৫ অপরাহ্ন   |   জেলার খবর


মনা,বেনাপোল (যশোর) প্রতিনিধিঃ

  দুর্গাপূজা উপলক্ষে বেনাপোল বন্দর দিয়ে গত ১১ দিনে ভারতে ইলিশ রপ্তানি হয়েছে মাত্র ৬১৮ মেট্রিক টন ইলিশ। বাকি ১০ দিনে ২ হাজার ৩৩২ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি করা নিয়ে সংশয় দেখা দিয়েছে। পর্যাপ্ত ইলিশ না পাওয়া ও বাজারে দাম বৃদ্ধির কারণে সম্পূর্ণ ইলিশ রপ্তানিতে সংশয় রয়েছে।


এদিকে নতুন করে দুই দফায় আরও ১০টি প্রতিষ্ঠানকে ৫০ মেট্রিক টন করে ৫ শত মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেয়া হয়েছে। এ নিয়ে ভারতে ইলিশ রপ্তানি হবে মোট ২ হাজার ৯ শত ৫০ মেট্রিক টন। ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শর্ত সাপেক্ষে রপ্তানির এই আদেশ কার্যকর থাকবে।


সোমবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিকালে ১৪ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি হয়েছে। এ নিয়ে ৫ সেপ্টেম্বর থেকে ১৯ সেপ্টেম্বর ১১ কার্য দিবসে মোট ৬১৮ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি হলো।


বেনাপোল স্থলবন্দর ফিশারিজ ইন্সপেক্টর আসওয়াদুল জানান, ইলিশ রপ্তানির ২০২১-২০২৪ এর নীতিমালা অনুযায়ী দুই দফায় প্রতিটি প্রতিষ্ঠানকে ৫০ মেট্রিক টন করে ৫৯টি প্রতিষ্ঠানকে মোট ২ হাজার ৯ শত ৫০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। গত ৫ সেপ্টেম্বর  থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ইলিশ রপ্তানি হয়েছে ৫ শত ১৬ মেট্রিক টন এবং রবি ও সোমবার (১৮ ও ১৯ সেপ্টেম্বর) এই দুই দিনে রপ্তানি হয়েছে ১০২ মেট্রিক টন ইলিশ। ৩০ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত শর্ত সাপেক্ষে রপ্তানির এই আদেশ কার্যকর থাকবে। বেশির ভাগ ইলিশ বেনাপোল স্থলবন্দর দিয়ে ভারতে রপ্তানি হবে বলে রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠানরা জানিয়েছেন।

প্রতি কেজি ইলিশের রপ্তানি মূল্য ১০ মার্কিন ডলার যা বাংলাদেশি টাকায় প্রতি কেজি ৯৪৮ টাকা। ভারত ও বাংলাদেশ দুই দেশের কাস্টমস থেকে শুল্কমুক্ত সুবিধায় ইলিশের এ চালান ছাড় করানো হচ্ছে। ইলিশের রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান হলো ৫৯টি। 


নাম প্রকাশে শার্শার এক রপ্তানিকারক জানান, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে ৫৯টি প্রতিষ্ঠানের ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দিলেও অনেক প্রতিষ্ঠান এখনো ইলিশ রপ্তানি করতে পারেনি। ২ হাজার ৯ শত ৫০ মেট্রিক টন ইলিশ রপ্তানির অনুমতি দেওয়া হয়েছে। ১৯ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মাত্র ৬১৮ মেট্রিক টন ইলিশ ভারতে রপ্তানি হয়েছে। রপ্তানির শেষ তারিখ ৩০ সেপ্টেম্বর। হাতে আর মাত্র ১০ দিন আছে। এই ১০ দিনে বাকি ইলিশ রপ্তানি করা সম্ভব হবে কি না সেটাই এখন আলোচ্য বিষয়।

জেলার খবর এর আরও খবর: