বিধবা স্ত্রী গীতা রানী স্বামীর সম্পত্তি ফিরে পেতে সংবাদ সম্মেলন করলেন

 প্রকাশ: ২৭ মে ২০২১, ১১:৫৩ অপরাহ্ন   |   আইন আদালত


স্টাফ রিপোর্টারঃ মোঃ পলাশ হাওলাদার হাছিব।

বাগেরহাট জেলার মোরেলগঞ্জ উপজেলায় পৌরসভার মৃত্যু ভাস্কর মিস্ত্রীর বিধবা স্ত্রী গীতা রানী মোরেলগঞ্জ উপজেলা প্রেসক্লাবে দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলন করেন।


গীতা রানীর লিখিত বক্তব্যে বলেন, পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ডে কলেজ রোডস্থ ডা: হরষিত হালদার এর চেম্বারের টিনির ঘর সহ মোরেলগঞ্জ মৌজা-১১৬, খতিয়ান-৮২১, এস এ মোরেলগঞ্জ দাগ নং ২৬০, জমির পরিমান-১.৫০ শতক জমি। যা আমার শ্বশুর মৃত উপেন্দ্র নাথ মিস্ত্রী ক্রয় সূত্রে মালিক। তার মৃত্যুান্তে ২ পুত্র পংঙ্কজ কুমার মিস্ত্রী ও ভাস্কর মিস্ত্রী রেখে যান। মৃত ভাস্কর মিস্ত্রীর ১ মেয়ে ও স্ত্রী গীতা রানী ওয়ারিশ।


 


তিনি জানান, তার স্বামীর জমাজমির অংশ আমাকে বুঝিয়ে না দিয়ে আমার ভাশুর পঙ্কজ কুমার মিস্ত্রী একাই ভোগ দখল করে আসছে। এমনকি আমার স্বামীর কোন পুত্র সন্তান না থাকার করাণে আমাদের অজান্তে ওয়ারিশ থেকে আমাদের নাম বাদ দিয়ে ভাশুরের একার নামে জমিজমা রেকর্ড করিয়ে নেন। যা গত ২৭/৬/২০১২ খ্রি: তারিখ বাগেরহাট ৫১/২০১২ মামলায় উপেন্দ্রেনাথ এর মৃত্যুান্তে একমাত্র পুত্র দাবি করে কাগজপত্র সংশোধন করার জন্য মামলা করেন।


বিষয়টি জানতে পেয়ে মোরেলগঞ্জ পৌর মেয়র ও স্থানীয় কমিশনারদের অবহিত করি। পরে মেয়র মহোদয়ের হস্তেক্ষেপে একার নামের ওয়ারিশকাম বাতিল করে দেন এবং ওয়ারিশগণের সম্পত্তির কাগজপত্র সংশোধন করে সম্পত্তি বুঝিয়ে দেবার জন্য ব্যাবস্থা গ্রহণ করেন। সে মতে ভাশুর পঙ্কজ কুমার টিনের ঘরের চাবি সহ সম্পত্তি বুঝিয়ে দিলেও আমার জামাই অপূর্ব কুমার সমাদ্দার ঘর সংস্কার করতে গেলে লোকজন নিয়ে কাজে বাধা দেন ও জীবন নাশের হুমকি প্রদান করে।


আমি অসহায়ের মত বিভিন্ন দ্বারে ঘুরতে থাকি। অত:পর মোরেলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র এস এম মনিরুল হক তালুকদারের দ্বারস্থ হয়ে সব খুলে বললে তিনি এই অসহায়ের সহায় হন। পরে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও বিভিন্ন গন্যমান্য ব্যক্তির শালিশ বৈঠকের মাধ্যমে আমি শরণখোলা উপজেলার ধানসাগর গ্রামের মাত্র ২ বিঘা জমি বুঝে পাই। কিন্তু বাকী জমাজমির প্রাপ্ত অংশ না দিয়ে বিভিন্নভাবে তালবাহানা করে আসছে সে। উপরন্তু বিষয়টি ধামা চাপা দেবার অসৎ উদ্দেশ্য হাসিল করার জন্য বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অভিযোগ, মিথ্যা মামলা এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক ও ইন্টারনেটে বিভিন্ন ধরণের গুজব ছড়িয়েছেন।


এমতাবস্থায় বিষয়টি নিয়ে আইনগত সহায়তা পেয়ে শান্তিপূর্ণ ভাবে বসবাস করার জন্য গীতা রানী বাগেরহাট-১ আসনের সংসদ সদস্য শেখ হেলাল উদ্দিন ও বাগেরহাট-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ্যাড: আমিরুল আলম মিলন এর হস্তক্ষেপ কামনা করছেন।